1. rana.bdpress@gmail.com : admin :
  2. admin@dailychandpurjamin.com : mazharul islam : mazharul islam
  3. rmctvnews@gmail.com : adminbd :
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মিজানুর রহমান আকন্দ টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে অমর ২১ ফেব্রুয়ারি প্রভাতফেরী ও পুষ্পস্তবক অর্পন বাকেরগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন ইয়াংছা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে অতিরিক্ত আইজিপি হলেন বাকেরগঞ্জের কৃতি সন্তান বশির আহমেদ বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরা হলোনা কলেজ শিক্ষার্থী লাকির বান্দরবান জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ইয়াংছা বাজারে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নগদ অর্থসহ ত্রাণ সামগ্রী ভিতরণ লামার ইয়াংছা বাজারে ভয়াবহ আগুন, কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি শ্রীপুরে, মাওনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রেফতার ভুল তথ্য প্রকাশের প্রতিবাদ জানিয়ে লামায় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হোসাইন চৌধুরী’র সংবাদ সম্মেলন কুড়িগ্রামে মাদক বিরোধী জনসচেতনতা সভা ও প্রীতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত

আপনি কি দুধ কলা দিয়ে কালসাপ পুষছেন

খারাপ লোক তার চরিত্র এক সময় না এক সময় প্রকাশ করবেই।

দুধ-কলা দিয়ে কালসাপ পোষার গল্প আমরা ক’জন জানি? আজ আপনাদের এমনই এক গল্প শোনাব।

গ্রামের পশ্চিম দিকের এক কাঠুরে রোজ কাঠ কাটতে যায় দক্ষিন দিকের এক ঘন জঙ্গলে।

বেশ বড় ঘন হওয়ায় জঙ্গলটিতে কাঠুরের জন্য কাঠের অভাব হত না কখনও। রোজ তার যা উপার্জন হত তা দিয়েই বেশ চলে যাচ্ছিল তার সংসার।

সংসার বলতে তার মা, স্ত্রী, মেয়ে এবং পোষা কুকুর ভজা।

এমনি একদিন জঙ্গলে যায় সে রোজকার মত। পথিমধ্যে একটি সাপের বাসা দেখতে পায় সে।

কিন্তু বাসায় একটি মাত্র ডিম ছিল। বাকি ডিমগুলোর খোলস ফুটে হয়ত সাপগুলো বেরিয়ে গেছে।

আশেপাশে মা সাপটিকেও দেখতে পেল না সে। ভাবল, হয়ত কাছাকাছিই আছে, তাই সে আর মাথা না ঘামিয়ে চুপচাপ পাশ কাটিয়ে চলে গেল তার কাজে।

কাজ শেষে বাসায় ফেরত যাচ্ছিল সে। একই পথ ধরে বাড়ি ফিরছিল আর তাই পথিমধ্যে সে এবার লক্ষ্য করল,

ডিম ফুটে বাচ্চা সাপ বেরিয়েছে ঠিকই। কিন্তু আশেপাশে মা সাপটিকে সে এবারও দেখতে পেল না। বেশ দুশ্চিন্তায় পড়ে গেল সে।

হাতে নিয়ে নেড়েচেড়ে দেখে তার কাছে বিষাক্ত সাপ মনে হল না। দ্বিধা দ্বন্দ্বে থেকেও বাচ্চা সাপটির ওপর মায়া হল তার।

তাই আর বেশি কিছু না ভেবে সাপটিকে বাড়ি নিয়ে গেল সে। এদিকে বাড়িতে তো তুলকালাম কান্ড।

কাঠুরে সাপটি বাড়ি এনেছে দেখে তার স্ত্রী তার সাথে ব্যাপক রাগারাগি করে। অগত্যা সাপটিকে সে বাড়ি থেকে অদূরে একটি গাছের ডালে ছেড়ে দিয়ে আসে।

কাঠুরেবউ যেন না জানতে পারে তাই সে চুপিচুপি বউয়ের অগোচরে সাপকে খাবার দিয়ে আসত।

এভাবে চলতে লাগল। সাপটি একসময় বড় হয়। প্রায়শই তাদের বাড়ির আশেপাশে ঘোরাফেরা করে।

একদিন কাঠুরে দেখতে পেল সাপটির গায়ে বিষাক্ত সাপের মত ডোরাকাটা দাগ। নিজে কিছুটা ভয় পেলেও স্ত্রীকে কিছুই জানাল না সে। ভেবেছিল বাড়ির পোষা কুকুরের মতই নিরীহ হবে। হাজার হোক, তাদের বাড়ির খাবার খেয়েই এত বড় হয়েছে।

একদিন বর্ষায় চারিদিকে পানি জমতে লাগল। বন্যা হয়ে সারা গ্রাম তলিয়ে গেল। সাপেরও থাকার জায়গার অভাব দেখা দিল।

বন্যার পানি নামতে শুরু করেছে। একদিন বাড়ির সকলে বাইরে গেল। সেদিন কুকুরটি দেখতে পেল খাটের কোণে লুকিয়ে থাকা সাপটিকে। অনবরত ডাকতে শুরু করল।

কিন্তু কিছুক্ষণ পর কুকুরটির আর কোন সাড়া পাওয়া গেল না।

বাড়ি এসে কাঠুরে দেখতে পেল, কুকুরটি মাটিতে লুটিয়ে পড়ে রয়েছে।

গোয়ালঘর থেকে পালা ছাগলের ডাক শুনে দৌড়ে গিয়ে দেখল, তার এতদিনের পালা সাপটিই ছাগলটিকে অর্ধেক খেয়েও ফেলেছে।

সে বুঝতে পারল, তার কুকুরটিকেও এই সাপেই মেরেছে।

কষ্ট সইতে না পেরে সে অগত্যা সাপটিকে মেরেই ফেলল।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনেও এমন অনেক মানুষকেই সুযোগ দিতে হয় যাদের অতীতে বিশ্বাসঘাতকতার ছাপ রয়েছে।

এসব মানুষকে সংশোধনের সুযোগ দেয়াটা দোষের কিছু না তবে এদের ওপর কখনোই চোখ বুজে ভরসা করাটা নিজের জন্য খাল কেটে কুমির আনার স্বরূপ।

একজন দুষ্কৃতিকারীকে যতই সুযোগ দেয়া হোক না কেন; সর্বদা তার জন্য কিঞ্চিৎ হলেও সন্দেহের দৃষ্টি রাখা প্রকৃত বুদ্ধিমানের কাজ।

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 rmcnewsbd
Theme Developed BY Desig Host BD