1. rana.bdpress@gmail.com : admin :
  2. admin@dailychandpurjamin.com : mazharul islam : mazharul islam
  3. rmctvnews@gmail.com : adminbd :
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সকল মানুষের ঘরে জামায়াতের দাওয়াত পৌঁছে দিতে হবে….. এডভোকেট মতিউর রহমান বাকেরগঞ্জে দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে আপন ভাইকে প্রার্থী করলেন এমপি জমে উঠেছে ইয়াংছা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ এর নির্বাচন সিনিয়র সাংবাদিক মহসিন মিয়ার মায়ের ইন্তেকাল, বিভিন্ন মহলের শোক শ্রীপুর উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেবেন জামিল হাসান দূর্জয় বাকেরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাদশার গণসংযোগ দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্ক, প্রতারণার শিকার হয়ে প্রেমিকের মৃত্যু লামায় এক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১২ ইউপি সদস্যের অনাস্থা বাবার মতো সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে চাই, সাইফুল ডাকুয়া ৫২ বছর মামলার পর নিজের জায়গা ফেরত পেলেন প্রকৃত মালিক

কুষ্টিয়ায় বিষাক্ত কেমিক্যাল ব্যবহার এর ফলে হুমকির মুখে মানুষ ও পরিবেশ

বিষাক্ত ক্যমিকেল দিয়ে রং এর কাজ করার কারনে বিভিন্ন ধরনের চর্ম রোগে আক্রান্ত হচ্ছে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কয়েক হাজার তাঁত শ্রমিক। শুধু শ্রমিকরাই না বিষাক্ত পানি গিয়ে দূষিত করছে মিঠা পানির আধার গড়াই নদীকে। যার ফলে স্বাস্থ্য ঝুকিতে জীব বৈচিত্রসহ নানা বয়সের মানুষ।

কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলায় প্রায় ৩৭ হাজার তাঁতী শুধু মাত্র কাপড় উৎপাদন করে জিবিকা নির্বাহ করে। এর মধ্যে বড় একটি অংশ সুতা তৈরী ও সুতার রং করার কাজ করে। এই রং করার কাজে ব্যাবহার হয় এ্যসিড,কষ্টিকসহ বিভিন্ন ধরনের বিষাক্ত ক্যামিকেল। কোন ধরনের প্রতিরোধ ব্যাবস্থ না নিয়েই এ সব বিষাক্ত ক্যামিকেল খালি হাত দিয়ে কাজ করে চলছে এখান শ্রমিকরা। এতে বিভিন্ন রকম চর্ম রোগে আক্রান্ত হচ্ছে তারা। শ্রমিকরেদর অভিযোগ আর কোন বিকল্প না থাকায় অনেকটা বাধ্য হয়ে তারা এই কাজ করছে বছরের পর বছর।

কোন রকম প্রতিরোধ ব্যাবস্থা ছাড়াই কাজ করার জন্য একদিকে যেমন শ্রমিকরা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শুধু তাই নয় সুতা রং করার ক্যামিকেল এর পানি পার্শবর্তী গড়াই নদীতে গিয়ে পড়ার কারনে স্বাস্থ্য ঝুকিতে আছে জীব বৈচিত্র সহ নদীর সাথে সম্পৃক্ত ছোট বড় নানা বয়সের মানুষ।
এ বিষয়ে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর মেডিকেল অফিসার ডাঃ মানাশান্তা ঘোষ বলেন, মানব দেহে যে কোন ক্যমিকেল ক্ষতিকারক। সুতায় রং করার জন্য যে ধরনের ক্যামিকেল ব্যবহার করা হয় তাতে মানব দেহে নানা ধরনের রোগের উপসর্গ দেখা দেয় শরীরের বিভিন্ন স্থানে ঘা পঁচড়া, চুলকানি, এ্যজমা, এমন কি ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে। তাই এ ধরনের কাজ করার সময় সব ধরনের সুরক্ষা ব্যাবস্থা নিয়েই কাজ করার পরামর্শ দেন তিনি।

কুমারখালী তাঁত বোর্ড এর ব্যবস্থাপক মেহেদি হাসান বলেন, বর্তমানে কিছু সমস্যা আছে তবে এই সমস্যা বেশী দিন থাকবে না। এর মধ্যে স্থানীয় এমপি মহোদয়ের সাথে কথা হয়েছে। ইটিপির মাধ্যমে শ্রমিকদের সুরক্ষা দেওয়ার কাজ শুরু করোছ। ক্যামিকেল এর পানি শোধনের জন্য আধুনিক মেশিন বসানোর কাজ এগিয়ে চলেছে। সেটা সম্পন্ন করতে পারলেই সম্যার স্থায়ী সমাধান হবে। এছাড়া উপজেলার সকল তাঁতীদের ঢেকে আদের সমস্যার কথা শুনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কেউ যদি প্রশিক্ষন নিয়ে চাই তাহলে আমরা তাদের প্রশিক্ষনের ব্যাবস্থা করবো।

সুতার রং এর কাজের এক শ্রমিক জানান, আমরা হাতে সরিষার তেল দিয়ে ও পলিথিন বেধে কাজ করি । তার পরেও আমাদের হাত কেঁটে যায় ।হাতে বিভিন্ন ধরনের চর্ম রোগ হয়। স্থানীয়রা জানান, সরকারকে দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে শ্রমিকদের প্রশিক্ষন ও ক্যামিকেল এর পানি যেন গড়াই নদীতে না যায় সেই ব্যাবস্থা করতে হবে।

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 rmcnewsbd
Theme Developed BY Desig Host BD