1. rana.bdpress@gmail.com : admin :
  2. admin@dailychandpurjamin.com : mazharul islam : mazharul islam
  3. rmctvnews@gmail.com : adminbd :
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সকল মানুষের ঘরে জামায়াতের দাওয়াত পৌঁছে দিতে হবে….. এডভোকেট মতিউর রহমান বাকেরগঞ্জে দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে আপন ভাইকে প্রার্থী করলেন এমপি জমে উঠেছে ইয়াংছা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ এর নির্বাচন সিনিয়র সাংবাদিক মহসিন মিয়ার মায়ের ইন্তেকাল, বিভিন্ন মহলের শোক শ্রীপুর উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেবেন জামিল হাসান দূর্জয় বাকেরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাদশার গণসংযোগ দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্ক, প্রতারণার শিকার হয়ে প্রেমিকের মৃত্যু লামায় এক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১২ ইউপি সদস্যের অনাস্থা বাবার মতো সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে চাই, সাইফুল ডাকুয়া ৫২ বছর মামলার পর নিজের জায়গা ফেরত পেলেন প্রকৃত মালিক

চুয়াডাঙ্গা গড়াইটুপির মেটেরি মেলা সর্ম্পকে যারা জানতে যান

আজকের লেখাটা
লেখক
জহিরুল ইসলাম (জনি)
পরিচালক,চুয়াডাঙ্গা পরিবার
ডেক্স ইনচার্জ দৈনিক চিত্রাঃ-

হযরতখাজা মালিক উল গাউস (রাঃ) একজন সাধক ছিলেন। তিনি চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার গড়াইটুপি গ্রামে একটি নির্জন মাঠে আস্তানা গড়ে তোলেন।সেখান থেকে তিনি ইসলাম ধর্ম প্রচার করতেন। এলাকায় পীর হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। ঐখানের তিনি বাংলা সনের ৭ আষাঢ় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তবে নির্দিষ্ট কোন সন নাই। গড়াইটুপি অমরাবতী মেলা গ্রামের মাঠের মধ্যে তার মাজার আছে। প্রতিবছর ৭ আষাঢ় হযরত খাজা মালিক উলগাউস (রাঃ) স্মরণে সাত দিন ব্যাপী মেলা অনুষ্ঠিত হতো বর্তমানে চার বছর ধরে বন্ধ। যা মেটেরী মেলা নামে পরিচিত সবার কাছে ।

কোন এক সময় হজরত মালেক-উল-গাউস (রঃ) তার আস্তানা গড়ে তুলে ইসলাম প্রচার শুরু করেন তা ঠিক কত সনের দিকে তার কোন নির্দিষ্ট নাই তবে তিনি ধর্ম প্রচারক ছিলেন । বহু কালের ইতিহাস থেকে জানা যায় তার জনপ্রিয়তায় ক্ষুদ্ধ হয়ে রাজা গৌরগবিন্দ তাকে বিতারিত করার জন্য চেষ্টা চালাতে থাকে এর মধ্যে রাজার মেয়ে অম্রবুচী নিজেই ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেন। এতে রাজা আরও বেশি ক্ষুদ্ধ হয় এবং তাকে চিরতরে মারার জন্য তার বিশাল সৈন্য বাহিনী প্রেরণ করেন। অলৌকিক ক্ষমতার অধিকারী দরবেশকে তার সৈন্য বাহিনী মারতে ব্যার্থ হয়, উপরোন্ত রাজার সৈন্য বাহিনী মারা যায় এবং রাজার রাজপ্রাসাদ মাটির নীচে বিলীন হয়ে যায়। যার ধবংসাবশেষ এখনও কালের সাক্ষি হয়ে অত্র ইউনিয়নের কালুপোল গ্রামে দর্শনীয় হয়ে আছে। এর কিছু দিন পর দরবেশ মালক-উল-গাউস (রঃ) ইহলোক ত্যাগ করেন।মৃত্যুর পর মালিক-উল-গাউছের শরীর সমাধি বটগাছের নিচেই করা হয়। যদিও বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে ভিন্নমত রয়েছে।

মাজার কে কেন্দ্র করে বহু যুগ ধরে গড়াইটুপির এই মাঠে মেলা বসতো তবে ঠিক কত বছর আগে থেকে এই মেলার যাত্রা শুরু তা অজানা সবার কাছে।কিন্তু বর্তমানে মেলাটি বন্ধ প্রায় চার বছর ধরে সর্বশেষ ২০১৬ সালে মেলাটি বসে ছিলো।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে সরকার মেলার স্থানটি ইজারা দিয়ে প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা রাজস্ব পায়। সে হিসাবে গত ৪ বছর স্থানটি ইজারা দিতে না পেরে সরকার প্রায় ২ কোটি টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছে। সেই সাথে এলাকাবাসী বঞ্চিত হয়েছে বিনোদন থেকে।মেলাটির সাথে মিশে আছে চুয়াডাঙ্গার ঐতিহ্য প্রায় ৪৭ জেলার মানুষের মিলন মেলার পূর্ণ হতো বটবৃক্ষের অবরাবতী মাঠ।

গ্রাম্য মানুষ প্রতিনিয়ত মাজারে মান্নত করে মনের আশা পূরণের জন্য।মাজারে পাশে বিশাল বটবৃক্ষ,বটবৃক্ষে মৌমাছির বসবাস করে তবে বর্তমানে কিছুটা কম।

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 rmcnewsbd
Theme Developed BY Desig Host BD