1. rana.bdpress@gmail.com : admin :
  2. admin@dailychandpurjamin.com : mazharul islam : mazharul islam
  3. rmctvnews@gmail.com : adminbd :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বরগুনাবাসীকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন লায়ন মোঃ ফারুক রহমান নান্দাইলের মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নে অসহায় ও গরীবদের জন্য দেওয়া ভিজিএফ’র চাল বিতরণে হরিলুট ভূরুঙ্গামারীতে আদম ব্যবসায়ীর জমজমাট ব্যবসা বসতবাড়ির ভিটা হারাচ্ছেন সাধারণ মানুষ নিখোঁজ সংবাদ নান্দাইলে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত প্রবীণ সাংবাদিক জালাল উদ্দীন মন্ডল খালিয়াজুরীতে সংসদ সদস্য সাজ্জাদুল হাসানের ঐচ্ছিক তহবিল থেকে অনুদান প্রদান নওগাঁয় ছেলের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেলো বাবার নওগাঁয় নিজ বাড়ির সামনে খুন হলেন মাতব্বর নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযান ১০১ কজি গাঁজাসহ গ্রেফতার-২ ভূরুঙ্গামারীতে সিটি প্রেস ক্লাবের নবনির্বাচিত সভাপতি হলেন সাংবাদিক কাজল ও সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক রফিকুল

লাল নিশান টানিয়ে দুই বড় জলমহাল ‘মরাধনু ও গজারিয়া’ দখলে নিল প্রশাসন

তানিম খান ক্রাইম রিপোর্টার

দখল মুক্ত করে লাল নিশান টানিয়ে নেত্রকোনার মোহনগঞ্জের ‘মরাধনু’ ও ‘গজারিয়া’ এ দুটি জলমহাল দখলে নিয়েছে প্রশাসন।
রোববার দুপুরে উপজেলার গাগলাজুর ইউনিয়নের বরান্তর ও করাচাপুরের সামনে থাকা ওই দুটি জলমহালে লাল নিশান টানিয়ে দখলে নেয় প্রশাসন। এরআগে ওই দুটি জলমহাল ব্যক্তি দখলে ছিল।
উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ‘মরাধনু’ জলমহালটির আয়তন ২২২.৮৭ একর। রফিক আহমেদ কুতুব নামে এক ব্যক্তি এই জলমহালটি এক বছরের জন্য লিজ নেন। গত ১৩ এপ্রিল সময় শেষ হওয়ায় তিনি এটি ছেড়ে দেন। পরে স্থানীয় গোলাম রসুল খান মিষ্টু নামে এক ব্যক্তি আদালতের রায়ে এটি লিজ পেয়েছেন দাবি করে জলমহালটি নিজের দখলে রাখেন।
এদিকে ৫০ একরের বেশি ‘গজারিয়া’ জলমহালটিও ৫০ একরের বেশি তিন বছরের জন্য লিজ পেয়েছিলেন সোহাগ মিয়া। গত ১৩ এপ্রিল এটিরও সময় শেষ হয়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সোহাগ মিয়া বলেন, গজারিয়া জলমহলটি আমার দখলে ছিলোনা। সরকারের দেওয়া বিলের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই আমি বিল ছেড়ে দিয়েছি। কৈবতরা( জেলেরা) মালামাল নিয়ে তাদের এলাকায় চলে গেছে। সোহাগ মিয়া আরো বলেন, আমি সব সময় বৈধভাবেই সবকিছু করি। গজারিয়া জলমহলের যদি আবার আসি ইনশাআল্লাহ বৈধভাবে আসবো।
উপজেলা প্রশাসন সূত্রে আরও জানা গেছে, জলমহালের পরিমাণ ২০ একরের বেশি হলে এটির দরপত্র আহ্বান করা হয় জেলা প্রশাসন থেকে। সেই হিসেবে ওই দুটি জলমহাল জেলা প্রশাসন থেকে দরপত্র আহ্বান করা হয়। সম্প্রতি দুটি জলমহাল লিজের জন্য টেন্ডার হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে কোন মৎস্যজীবী সমিতি পেয়েছে এটা এখনো প্রকাশ হয়নি।
মরাধনু জলমহালটি দখলে রাখা বরান্তর গ্রামের গোলাম রসুল খান মিষ্টু বলেন, জলমাহলাটির ইজারা আমি বিগত তিন বছর ধরে দিয়ে যাচ্ছি। টেন্ডারে এটি আমার সমিতি লিজ পেয়েছে। হাইকোর্টের আদেশে আমাকে বুঝিয়ে দিতে বলা হয়েছে। বারবার এ কথা জানানোর পরও প্রশাসন আজও আমাকে জলমহালটি বুঝিয়ে দিচ্ছে না। কাগজে পত্রে জলমহালটি বুঝিয়ে দেওয়ার আগে আমি দেখাশোনা করছি। লোকজন দিয়ে প্রহরার ব্যবস্থা করেছি, মাছ ধরছি না।

গাগলাজুর ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (নায়েব) শামীম আকন্দ বলেন, জলমহাল দুটি দখল করে রেখেছে এমন খবর পেয়ে গিয়ে লাল নিশান টানিয়ে রেখে এসেছি। যেন মানুষ জানে ওই জলমহাল দুটি প্রশাসনের অধীনে রয়েছে। সহাকারী কমিশনার (ভূমি) স্যারের নির্দেশে

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 rmcnewsbd
Theme Developed BY Desig Host BD