1. rana.bdpress@gmail.com : admin :
  2. admin@dailychandpurjamin.com : mazharul islam : mazharul islam
  3. rmctvnews@gmail.com : adminbd :
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন

৭৫ বছর বয়সে মানুষের তৃঞ্চা মিটানোই যার জীবিকা পায়নি ভাতাকার্ড

বয়সের তারতম্যের ধার দ্বারে না জীবন। শুধু বেচেঁ থাকার তাগিদে জীবন বেছে নেয় যেকোন জীবিকা। ঠিক তেমনি জীবনের ষাটোর্ধ্ব পেরিয়ে ৭৫ বছর বয়সের এক বৃদ্ধ বেছে নেয় মানুষের তৃঞ্চা মিটানোর জীবিকা। আর তা দিয়ে চলে জীবন সংসার। সেই বৃদ্ধের নাম মো শামসুদ্দিন (৭৫)।
প্রতিদিন সকালেই বেরিয়ে পড়েন ইঞ্জিন চালিত ভ্যানগাড়ি নিয়ে। যে গাড়িতে তিনি বসিয়েছেন আখের রস তৈরী করার যন্ত্র। বিভিন্ন স্থান থেকে আখ যোগাড় করা সহ মাত্র ৪ থেকে ৫শত টাকা খরচ হয় প্রতিদিন। প্রতি গ্লাস আখের রস ১০ টাকা করে বিক্রি করেন। এতে দৈনিক বিক্রি হয় ৮শত টাকা থেকে ১২শত টাকা পর্যন্ত। এতে দৈনিক আয় হয় ৩/৪শত টাকা। লোকজন লাইন ধরে আখের রস পান করে তৃঞ্চা মিটায়।
জানাগেছে, শামসুদ্দিন মুশুল্লী ইউনিয়নের উত্তর মুশুল্লী গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের পুত্র। তার স্ত্রী সহ ৪ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। শামসুদ্দিনের শুধু বাড়িটুকুই রয়েছে। যেখানে তার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বসবাস করে। অর্থাভাবের কারনে লেখাপড়ার খরচ যোগাতে না পারায় মাধ্যমিক স্কুলের গন্ডি পেরোতে পারেনি কোন ছেলেমেয়ে। বড় মেয়েকে বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন তিনি। ছোট মেয়ে এখনও বাড়িতে। অন্য তিন ছেলের মধ্যে কেউ যানবাহনের হেলপারি ও কেউ অন্যের কাজ কর্ম করে দেয়। এভাবেই চলছে সংসার।
তবে থেমে নেই বাবা শামসুদ্দিন। বেছে নেয় মানুষের তৃঞ্চা মিটানোর কাজ। কিছু টাকা ধার নিয়ে প্রায় ৩০ হাজার টাকার মধ্যে একটি আখের রস তৈরী যন্ত্র ক্রয় করে। যা হাত দিয়ে ঘুরিয়ে আখের রস বের করতো। এতে যা আয় হয় তা দিয়ে সংসারের হাট-বাজারে ব্যয় করতো। আর কিছু সঞ্চয় রাখতো। বর্তমানে তা দিয়ে ৯০ হাজার টাকার বিনিময়ে একটি ইঞ্জিন ক্রয় করে। এখন আর হাত দিয়ে আখের রস বের করতে হয় না। সহজেই তৃঞ্চার্থদেরকে দ্রুত আখের রস পান করাতে পারেন। প্রথমে প্রতি গ্লাস ৫টাকা বিক্রি করলেও বর্তমানে তিনি প্রতি গ্লাস ১০টাকা বিক্রী করছেন।
এ বিষয়ে রস বিক্রেতা সামসুদ্দিন জানান, তাঁর বয়স ৭৫ পেরিয়ে গেলেও তিনি সরকারি বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন না। কারন ভোটার আইডি কার্ড করার সময় কে বা কারা তার বয়স কমিয়ে দিয়েছে। শুধু তাই নয় তাঁর পরিবারে কোন সদস্যদেরই কোন ধরনের সরকারি সহায়তা বা সুবিধা পায় না।
বাংলাদেশ মানবাধিকার সংগঠন নান্দাইল শাখার সাধারন সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক এনামুল বাবুল বলেন, তাঁর জীবন যুদ্ধে শামসুদ্দিন একজন সফল সৈনিক। সরকারি তাঁর প্রাপ্য সুবিধা বয়স্কভাতা প্রদানের জন্য সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তরের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 rmcnewsbd
Theme Developed BY Desig Host BD